Subscribe Us

চন্দরপুর বাজারের ডাঃ আব্দুল মতিন আর নেই



চন্দরপুর বাজারের বিশিষ্ট চিকিৎসক বানিগাজী গ্রামের ডাঃ আব্দুল মতিন আর নেই। আজ (রবিবার, ২১ মার্চ) দুপুর ১টা ১০মিনিটে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিলেটের মা ও শিশু হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৭৫ বছর। তিনি স্ত্রী,  চার ছেলে, তিন মেয়ে-সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

ডাঃ আব্দুল মতিন সিলেটের মা ও শিশু হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ ফয়ছল আহমেদের পিতা এবং চন্দরপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ডাঃ আব্দুল মুতলিবের ভাই।

তিনি দীর্ঘদিন থেকে বার্ধক্যজনিত কারণে বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন। সর্বশেষ গত সপ্তাহে তাঁর শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে তাঁকে মা ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি আজ দুপুর ১টা ১০মিনিটে পরলোক গমণ করেন।

ডাঃ আব্দুল মতিন দীর্ঘদিন থেকে চন্দরপুর বাজারে সাধারণ মানুষকে চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন। তিনি ছিলেন চন্দরপুর বাজারের শাপলা ফার্মেসির স্বত্বাধিকারী। এখানেই তিনি সাধারণ মানুষকে চিকিৎসাসেবা প্রদান করতেন। তিনি বৃহত্তর চন্দরপুর-সহ কুশিয়ারা অঞ্চলের পল্লী চিকিৎসক হিসেবেই খ্যাত ছিলেন। 

এদিকে, ডাঃ আব্দুল মতিনের মৃত্যুতে শোকের ছায়া বইছে তাঁর গ্রাম বানিগাজী-সহ বৃহত্তর চন্দরপুর এলাকায়। তিনি চন্দরপুর বাজারের দীর্ঘদিনের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যবসায়ী ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে চন্দরপুর বাজারের ব্যবসায়ীবৃন্দ, বৃহত্তর এলাকার সমাজসেবী-গুণীজন, যুবসমাজ ও আপামর জনতা গভীর শোক প্রকাশ করছেন।